লকডাউনে সুস্থ থাকবেন যেভাবে


করোনা সংক্রমণ আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে বিশ্বব্যাপী। লকডাউনের দিকে আবারও এগোচ্ছে বিশ্ব। দেশেও সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। যেহেতু লকডাউন ঘোষণা হয়েছে, তাই করোনা এড়াতে সবসময় ঘরে থাকাটাই শ্রেয়। আর লকডাউনে ঘরে বসে নিজেকে কিভাবে সুস্থ রাখবেন আসুন জেনে নিই।

 

পুষ্টিকর খাবার: এসময় নিজের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এবং নিজেকে সুস্থ রাখতে পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার জুরি নেই। বেশি বেশি ভিটামিন সি জাতীয় খাবার এসময় সবচেয়ে জরুরী। পাশাপাশি খেতে হবে গুড ফ্যাট। বাতাম, বীজ, নারিকেল তেল, ঘি ভালো চর্বির উৎস। এ ধরনের খাবার মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বাড়াতে। মসলাদার খাবার যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলা উচিত।

এছাড়াও নিজেকে সচল ও চাঙ্গা রাখতে ডিম, দুধ, মাংস, মাছ প্রভৃতি আমিষ জাতীয় খাবার খেতে হবে। দিনের যেকোন সময়ে খাদ্য তালিকায় ফল রাখতে হবে। যেহেতু লকডাউনের সময়, তাই ঘরে রাখতে পারেন খেজুর, ডুমুর জাতীয় শুকনো ফল।

 

ব্যায়াম: ঘরবন্দী হয়ে পড়ায় স্বাভাবিক হাঁটাচলার পরিমাণও কমে যাবে এই সময়ে। এজন্য শরীরকে কর্মক্ষম রাখতে ঘরে বসে ফ্রি হ্যান্ড ব্যায়াম করুন। স্কিপিং রোপ বা দড়ি লাফ, যোগ ব্যাম বা নাচের প্র্যাকটিসও করতে পারেন অনায়াসে। এসবের জন্য দরকার হলে ইউটিউবের সাহায্য নিন।

 

ঘুম: সারাদিন বাসায় বসে থেকে নিজের রুটিন পরিবর্তন করে ফেলবেন না। রাতে সঠিক সময় ঘুমিয়ে পড়ুন এবং খুব সকালে ঘুম থেকে উঠে ছাদে গিয়ে ঘোরাফেরা করুন। সঠিক ঘুম না হলে মানুষের মনের উপর এর প্রভাব পরে এবং স্বাভাবিক আচরণ পরিবর্তিত। মেজাজ খিটখিটে হয়ে যায়। এজন্য পর্যাপ্ত ঘুমের দিকে বিশেষ নজর দিন।

 

মানসিক স্বাস্থ্য: এই লকডাউনে কর্মব্যস্ত মানুষেরা কর্মহীন হয়ে পড়ার কারণে মনের উপর এর প্রভাব পরে। অনেকেই বিষন্নতায় ভোগেন। বেড়েছে আত্মহত্যার প্রবণতাও। তাই মনের যত্ম নেয়াটাও আবশ্যক। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলুন, আড্ডা দিন, গাছের পরিচর্যা করুন, পছন্দের বই পড়ুন, সিনেমা দেখুন, বন্ধুদের সঙ্গে ভার্চুয়াল আড্ডায় মেতে উঠুন। এভাবে নিজেকে প্রাণবন্ত রাখুন।

 

ঘরোয়া পদ্ধতিতে নিজেকে সুস্থ রাখুন: নিজের চারপাশ পরিচ্ছন্ন ও জীবানুমুক্ত রাখুন। শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা দেখা দিলে গরম পানি ভাপ নিন।

 


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *